ইসলামী ব্যাংকিং ও অর্থায়ন পদ্ধতি সমস্যা ও সমাধান
মাত্র ৪০ টাকায় বাংলাদেশের যে কোন প্রান্তে বই পৌছে দেয়া হয় 
২-৫ দিনের মধ্যে বিতরণ যোগ্য

ইসলামী ব্যাংকিং ও অর্থায়ন পদ্ধতি সমস্যা ও সমাধান

ইসলামী অর্থায়নে সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ দিক  হচ্ছে পারস্পরিক সহযোগীতা । আর বর্তমানে প্রচলিত ব্যাংকিং ব্যবস্থা হচ্ছে আধুনিক যুগের পারস্পরিক অর্থায়ন সহযোগিতার উন্নত পদ্ধতি । ইসলাম পারস্পরিক সহযোগিতামূলক আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সকল কর্মতৎপরতাকে অবৈধ করেনি । 

সুদের অপবিত্রতা থেকে মুক্ত হয়ে যেসব আর্থিক প্রতিষ্ঠান বৈধ ও সুষ্ঠু পদ্ধতিতে নিজের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে আত্মনিয়োগ করে ইসলাম তাকে উৎসাহিত করে । ব্যাংক নিশ্চয়ই কল্যাণকর ও অত্যন্ত প্রয়োজনীয় আর্থিক প্রতিষ্ঠান । কিন্তু বর্তমান প্রচলিত ‍সূদভিত্তিক ব্যাংক হলো পুজিঁপতিদের জন্য, গরীবদের জন্য নয় । কারন এটা হলো সম্পদ বাড়ানোর ও সম্পদশালীদের স্বার্থ রক্ষার প্রতিষ্ঠান এবং গরীবদের শবদেহের উপর পুজিঁর গগনচুম্বি অট্টালিকা তৈরি করার উত্তম হাতিয়ার । তবে অর্থায়ন পদ্ধতির যে চি্ত্র ইসলাম পেশ করেছে তা পৃথিবীতে যদি বাস্তবায়ন করা হয়, তাহলে সম্পদের সুষম বন্টন নিশ্চিত করে সমাজের পরির্তন আনতে সক্ষম হবে । 

বাংলা ভাষায় ইসলামী অর্থায়ন পদ্ধতি সম্বন্ধে প্রামাণ্য গন্থের একান্ত অভাব পবিলক্ষিত হয় । ১৯৯৮ সালে প্রকাশিত প্রখ্যাত অর্থনীতিবিদ ও ইসলামী ব্যাংকিংয়ের রূপকার জাষ্টিজ ও যুগ সচেতন মুফতী শাইখুল ইসলাম আল্লামা ত্বাকী উসমানী রচিত ‘ইসলামিক ফাইন্যান্স’ শীর্ষক ইংরেজী ভাষার গবেষনামূলক গ্রন্থ যুগ সচেতন ইসলামী অর্থনীতিবিদ ও উলামায়ে কেরামের মাঝে ব্যাপক সাড়া জাগাতে সক্ষম হয় । উর্দুভাষীদের সুবিধার্থে পাকিস্থানের মাওলানা মুহাম্মাদ যাহিদ ’ইসলামী ব্যাংকারী কী বুনিয়াদে’ নামে গ্রন্থটি উর্দু ভাষায় রূপান্তরিত করেন । ‘ইসলামী ব্যাংকিং ও অর্থায়ন পদ্ধতি সমস্যা ও সমাধান’ তারই বা্ংলা অনুবাদ । গ্রন্থকার তার এ গ্রন্থে ইসলামী অর্থায়ন সম্পর্কিত মৌলনীতিসমূহের ব্যাখ্যা-বিশ্লেষণ, বিভিন্ন প্রশ্ন ও সমস্যা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোকপাত করে গ্রন্থের মাধ্যমে এক ঐতিহাসিক দায়িত্ব পালন করেন । 

১৩৮.০০ ২৩০.০০
পৃষ্ঠা সংখ্যা : ২৩২
ভাষা: বাংলা
 

ফোনে অর্ডার দিতে কল করুন

০১৭২১-৯৯৯-১১২

image01
image02
image01
image02

১। আপনি ফোন বা অনলাইন এর মাধ্যমে অর্ডার করার পর কিতাব ঘর আপনার সাথে যোগাযোগ করবে এবং আপনার বিলি ঠিকানা নিশ্চিত করবে ।

২। SMS এর মাধ্যমে আপনাকে আপনার অর্ডার নং ও অর্ডার এর মুল্য পাঠানো হবে ।

৩। কিতাব ঘর এখন ঢাকা ও এর আশেপাশে ক্যাশ অন ডেলিভারী ও কুরিয়ার সার্ভিস এর মাধ্যমে বই পাঠাচ্ছে । এবং ঢাকার বাইরে কুরিয়ার সার্ভিস এর মাধ্যমে বই পাঠাচ্ছে ।

৪। বই পাঠানোর ১-২ দিনের মধ্যে আপনারা আপানদের ঠিকানাতে বই পেয়ে যাবেন। কিন্তু বাংলাদেশের অনেক গ্রাম বা প্রত্যন্ত এলাকা যেখানে কোনো কুরিয়ার সার্ভিস এর সেবা নাই , সেখানকার জন্য জেলা বা থানা শহরের কুরিয়ার সার্ভিস অফিস হতে বই সংগ্রহ করতে হবে ।

৫। বইয়ের মুল্য bKash, ডাচ বাংলা মোবাইল বা ক্যাশ অন ডেলিভারী এর মাধ্যমে প্রদান করা যাবে । বাংলাদেশের যে কোনো প্রান্তে ৪০ টাকায় বই পৌছে দেয়া হবে ।

৬। যারা বাংলাদেশের বাইরে থেকে অর্ডার করবেন, তাদের জন্য ডেলিভারী চার্জ বইয়ের ওজন ও দেশের উপর নির্ভর করবে । বিভিন্ন দেশের ও বিভিন্ন পরিমানের ডেলিভারী চার্জ দেখতে এখানে ক্লিক করুন ।

অনুগ্রহ করে কিতাবঘর ডট কমে লগইন করুন । লগইন

মাত্র ৪০ টাকায়

২-৫ দিনের মধ্যে ডেলিভারি দেয়া হয়
 

ক্যাশ অন ডেলিভারি

শুধু মাত্র ঢাকা ও এর আশেপাশে প্রযোজ্য
 

০১৭২১ ৯৯৯ ১১২

ফোনের মাধ্যমে ও অর্ডার নেয়া হয়